বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:২১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
করোনায় মৃত্যুবরণ করা এক যুবকের শেষ কথাগুলো গ্রাজুয়েট নার্সিং কোর্সের শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানালেন ড. মোহাম্মদ ইউনুস চিকিৎসক, নার্স সহ শীঘ্রই ২০ হাজার নিয়োগ আসছেঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী দারিদ্র ও মেধাবীদের লোনের মাধ্যমে ডিপ্লোমা নার্সিং কোর্সে অধ্যায়নের সুযোগ করোনা ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া সাময়িক স্থগিত করেছে সৌদি সরকার। রাজধানীর দুই নার্সিং শিক্ষার্থীর লেখাপড়ার দায়িত্ব নিলো সিলেট ওসমানী বিএনএ বাংলাদেশের নার্সিং শিক্ষা মান্ধাতার আমলেরঃ চট্টগ্রাম মেডিকেলের সাবেক অধ্যক্ষ সেবা নিশ্চিত করতে নার্সদের অভিযোগ সরাসরি জানাতে বললেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বিভাগীয় পর্যায়ে আইসিইউ প্রশিক্ষণ চালু রাখায় ওসমানী বিএনএ’র কৃতজ্ঞতা কক্সবাজারে ৮৫ হাজার টাকা বেতনে চাকরির সুযোগ বিএসএমএমইউ’তে গ্রাজুয়েট নার্সিং শিক্ষার্থীদের ক্যাপিং সেরিমনি অনুষ্ঠিত

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে, উখিয়া ও ভাসানচরে নার্সিং জব প্রত্যাশিদের জন্য বিশেষ প্রতিবেদন

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৫৪৩৬ Time View

চলমান রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নার্স নিয়োগের খবরাখবর ও বিস্তারিত তথ্য পাবার জন্য mynursing.club থেকে অনেক চেষ্টার পর ড. আজমীরা সেনকে আমরা পাই, আমাদের হয়ে একটি প্রতিবেদন তৈরি করে দেয়ার জন্য। ড. আজমীরা ২০১৮ সাল থেকে IRC তে ডাক্তার হিসাবে (শিশু) দাযিত্ব পালন করছেন। চলুন তার লেখা প্রতিবেদনটিই সরাসরি পড়া যাক।
নিজস্ব প্রতিবেদন– mynursing.club এর পক্ষে,
ড. আজমীরা সেন
আই. আর. সি (IRC), উখিয়া (রোহিঙ্গা ক্যাম্প)

ফটোঃ IRC ক্যাম্পে স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন একজন ডাক্তার।
আই. আর.সির নার্স নিয়োগ সংক্রান্ত তথ্য, বেতন, সুযোগ সুবিধা ও আনুষঙ্গিক বিষয়ে একটি সংক্ষিপ্ত ডকুমেন্টারি তৈরি করার জন্য আমার জানা তথ্যই যথেষ্ট ছিলো, তবুও মাই নার্সিং ক্লাব সাইটের এডমিন সাঈদুলের অনুরোধে আমাদের প্রকল্প পরিচালক ব্রাউন স্যারের সামনা সামনি বসলাম, আলোচনার অডিও রেকর্ড মাইনার্সিং ক্লাবের এডমিনের কাছে দেয়া হয়েছে।

জানতে চেয়েছিলাম (ইংরেজিতে) নার্স নিয়োগ দেয়া হবে কত জন?
উত্তরে জানালেন আপাতত মিডওয়াইফ ও নার্স মিলে অনেকজন প্রয়োজন রয়েছে। তবে ভাষানচরে সিনিয়রদের ট্রান্সফার করা হলে নতুন করে ৪ টা গ্রুপ করা লাগবে। তখন আরো বেশি প্রয়োজন হবে।

আনুমানিক জানতে চাইলে বলেন, সেটা এখনি বলা যাচ্ছেনা। কতটা পরিসরে কাজ করতে হবে তার উপর নির্ভর করবে। তাছাড়া WHO তে (ভাসানচর) আমাদের একটা টিমকে যোগ দিতে হবে সম্ভবতো, সেক্ষেত্রে নতুন টিমের জন্য আরো ভলিনটেয়ার (নার্স) লাগবে।
স্যারের সাথে এতটুকুই কথা হয়।

নিয়োগপ্রাপ্তদের বেতন কত হবে?
নিয়োগের বেতন কত হবে এটা সবসময়ই নির্দিষ্ট না। প্রজেক্টের কর্মপরিসর কতটা তার উপর ভিত্তি করে বেতন নির্ধারণ করা হয় আই.আর.সিতে। আমি যখন প্রথম ২০১৮ তে IRC তে যোগদান করি তখন নার্সিং ভলিনটেয়ারদের স্টার্টিং সেলারি ছিলো ৪৬,০০০ টাকা। এরপর ২০১৯ এ যে নিযোগ হযেছিল, তা আমার সঠিক মনে নেই। এজন্য মেনেজারের ডেক্সে আসি। প্রথমে উত্তর দিতে না চাইলেও, যখন জানালাম একটি online নার্সিং প্লাটফর্ম mynursing.club এ নিউজ করবার জন্য তারা আমাকে অনুরোধ করেছেন। তখন কিযেন ভেবে নিয়োগকৃত ভলিনটারদের খাতা বের করে বললেন ২০১৯ এর সেপ্টেম্বরে নিয়োগপ্রাপ্তদের বেতন ৪৬,০০০/- health Volunteer (Nurse) ২০২০ সালের গত আগস্ট মাসে নিয়োগপ্রাপ্তদের বেতন ছিল ৪৭,২৫০ টাকা।
➝ এবারের সার্কুলারে বেতন কত হবে?
উত্তরঃ ৪৭,২৫০ টাকা, তাছাড়া অন্যান্য ভাতাদি থাকবে।
এবার আসি অন্যান্য সুযোগ সুবিধার বিষয়ে। বাৎসরিক ২ টি উৎসব ভাতা পেয়ে থাকেন সবাই। তাছাড়া মোবাইল বিল ও মেডিক্যাল বিল দেয়া হয়া। থাকবার জন্য IRC এর নিজস্ব তত্যাবধানে সুরক্ষিত ও যথেষ্ট ভাল আবাসন রয়েছে। খাবার জন্য রযেছে সুব্যবস্থা।

ড্রেস বা পোশাকের বিষয়ে কিছু বলুন….
mynursing থেকে সাঈদুল যখন জিজ্ঞেস করলো, ড্রেস পরায় কিকি বিধি নিষেধ রয়েছে? প্রশ্নটা শুনে আমি ব্যাক্তিগতভাবে বিরক্ত হই। নার্সিং প্রফেশনে বিভিন্ন হাসপাতাল বা প্রতিষ্ঠানে মেয়েদের হিজাব বা অন্যান্য বিষয়ে অনেক ঝামেলা মাঝে মাঝে শুনি। কিন্তু আইআরসিতে যারা জব করছেন- আমাদের কেউ কখনো এ ধরণের বিব্রতকর অবস্থায় ফেলেননা। যার যেমন ইচ্ছা তেমন ড্রেসে ডিউটি করতে পারেন। এমনকি অফিসে রিপোর্ট জমা দেয়াকালেও অনেকে পুরো মুখ হিজাবে ঢেকে রাখেন, তাতেও কখনো কোনো বাধা দেয়া হয়না। তবে মাঠ পর্যায়ে ডিউটি কালিন অবশ্যই IRC এর নিজস্ব এপ্রোন/ শার্ট পড়তে বলা হয় এবং গলায় আইডি কার্ড ঝুলাতে বলা হয়, তাছাড়া অন্যকোনো বিধিনিষেধ নেই।

যে যার নিজস্ব ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান পালন করতে পারেন, কোনো বাধা-নিষেধ নেই।

এবার চলুন আই.আর.সি সম্পর্কে কিছু জানা যাকঃ
২০১৮ সালে সর্বপ্রথম বাংলাদেশে আগমন ও কার্যক্রম শুরু করে, International Rescue Committee (IRC)
আজ থেকে ৮৭ বছর পূর্বে ১৯৩৩ সালে সর্বপ্রথম IRC প্রতিষ্ঠিত হয় যুক্তরাষ্টের নিউইয়র্ক সিটিতে।
বাংলাদেশে তাদের আগমণের কারণ ছিল, রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীদের সেবা প্রদান করা। তারি ধারাবাহিকতায় এখনো সংস্থাটি নিরবচ্ছিন্নভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

বাংলাদেশে সংস্থাটির (NGO) দাপ্তরিক অফিস ঢাকায়, তাছাড়া তাদের সেবা কেন্দ্রীক একমাত্র অফিস/ কেন্দ্র ছিল, উখিয়া, কক্সবাজার। তবে বর্তমানে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানানতর করার কারণে সেখানেও নতুন আরেক কেন্দ্র বা অফিস প্রস্তুত করা হয়েছে।

ফটোঃ IRC ক্যাম্পে স্বাস্থ্য ভলিন্টেয়ার ইয়েসমিন(বামে)

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102